সর্বশেষ সংবাদ
ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯
ICT News | Online Newspaper of Bangladesh |
রবিবার ● ৪ নভেম্বর ২০১২
প্রথম পাতা » আইসিটি আপডেট » স্মার্টফোন বাজারের ৭৫ শতাংশই অ্যান্ড্রয়েড এর দখলে
প্রথম পাতা » আইসিটি আপডেট » স্মার্টফোন বাজারের ৭৫ শতাংশই অ্যান্ড্রয়েড এর দখলে
৫০৯ বার পঠিত
রবিবার ● ৪ নভেম্বর ২০১২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

স্মার্টফোন বাজারের ৭৫ শতাংশই অ্যান্ড্রয়েড এর দখলে

স্মার্টফোন বাজারের ৭৫ শতাংশই অ্যান্ড্রয়েড এর দখলেবছরের তৃতীয় প্রান্তিকে বিক্রি হওয়া স্মার্টফোনের ৭৫ শতাংশই ছিল গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের (ওএস) দখলে। বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বী আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের বাজার দখল ছিল মাত্র ১৫ শতাংশ। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ডাটা করপোরেশন (আইডিসি) সম্প্রতি এ তথ্য জানায়। খবর সি-নেটের।
অ্যাপলের মোবাইল ডিভাইসগুলোর ওএস সংক্ষেপে আইওএস বলে পরিচিত। অন্যদিকে গুগল অ্যান্ড্রয়েড একটি ওপেন সোর্স মোবাইল ডিভাইস ওএস। গুগলের ওএসই ব্যবহূত হয় বেশির ভাগ স্মার্টফোনে।

আইডিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী ১৮ কোটি ১০ লাখেরও বেশি ডিভাইস বাজারজাত করে ওএসের শীর্ষে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড। দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও
অ্যান্ড্রয়েড থেকে অ্যাপল আইওএস অনেক পিছিয়ে। ওএসটির বাজার দখলের পরিমাণ ১৫ শতাংশের কম।

আইডিসির সেলফোন রিসার্চ শাখার ম্যানেজার রামোন লামাস অ্যান্ড্রয়েড সম্পর্কে এক বিবৃতিতে জানান, ২০০৮ সালে গুগল অ্যান্ড্রয়েড বাজারে আনে। সেই থেকে এখন পর্যন্ত ওএসটি স্মার্টফোনের প্রবৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এ ছাড়া প্রতি বছরই অন্যান্য ওএসের চেয়ে এগিয়ে যাচ্ছে এটি। সব ধরনের ক্রেতার কাছে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড। সেলফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছেও অ্যান্ড্রয়েডচালিত ডিভাইস জনপ্রিয়। এ কারণে এত বেশি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস তৈরি ও বিক্রি হয়। উল্লেখ্য, গুগল অ্যান্ড্রয়েড ও অ্যাপল আইওএস ছাড়াও মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, স্যামসাংয়ের বাদা, রিসার্চ ইন মোশনের বিবিএক্স ও নকিয়ার সিমবিয়ান স্মার্টফোন ওএস হিসেবে পরিচিত।

আইডিসি জানিয়েছে, বর্তমানে স্মার্টফোন ক্রেতাদের প্রতি চারজনের মধ্যে একজনের প্রথম পছন্দ অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস। গত বছরের তুলনায় এ বছর ওএসটির প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৯১ দশমিক ৫ শতাংশ। এ ছাড়া গত বছরের তৃতীয় প্রান্তিকের তুলনায় এ বছরের একই সময়ে এর প্রবৃদ্ধি ছিল ৪৬ দশমিক ৪ শতাংশ।
আইডিসি আরও জানায়, ক্রেতাদের কাছে অ্যান্ড্রয়েডচালিত ডিভাইসের মধ্যে স্যামসাং সবচেয়ে জনপ্রিয়।

অ্যান্ড্রয়েডের চেয়ে অ্যাপলের আইওএস বর্তমানে অনেক পেছনে পড়ে আছে। তবে বছরশেষে এ ব্যবধান কিছুটা কমতে পারে বলে মনে করছে আইডিসি। গত মাসে আইফোন ফাইভ বাজারে আসায় এবং আগের আইফোনগুলোর দাম কমানোয় বছরশেষে অ্যাপলের বাজার দখল কিছুটা বাড়বে বলে আইডিসি জানায়।

এ দুটি ওএস এগিয়ে থাকলেও রিসার্চ ইন মোশনের (আরআইএম) বিবি ওএসের পারফরম্যান্সও ভালো ছিল না। বর্তমানে ওএসটির বাজার দখলের পরিমাণ মাত্র ৪ শতাংশ।
এ সম্পর্কে আইডিসির সিনিয়র গবেষণা বিশ্লেষক কেভিন রেসটিভোর মতে, স্মার্টফোন ওএস কোনো বিচ্ছিন্ন পণ্য নয়, বরং এটি প্রযুক্তি বাস্তুসংস্থানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। গুগলের পণ্য পোর্টফোলিও অনেক সমৃদ্ধ। অন্যান্য স্মার্টফোন নির্মাতা এ হিসেবে অনেক পিছিয়ে।

কান্তার ওয়ার্ল্ডপ্যানেল কমটেকের সম্প্রতি প্রকাশ করা এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইউরোপে এখন গুগল অ্যান্ড্রয়েডের বাজার দখলের পরিমাণ ৬৭ শতাংশ। আগের বছরের একই সময় এর পরিমাণ ছিল ৫১ শতাংশ। অ্যাপল আইওএসের বাজার দখলের পরিমাণ এখন সাড়ে ১৬ শতাংশ। তবে যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বিপরীত। সেখানে অ্যাপল আইওএসের বাজার দখলের পরিমাণ প্রায় ৩৮ শতাংশ। আগের বছরের একই সময় এর পরিমাণ ছিল সাড়ে ২১ শতাংশ। অন্যদিকে গুগল অ্যান্ড্রয়েডের
বাজার দখলের পরিমাণ সাড়ে ৫৭ শতাংশ। আগের বছর যা ছিল ৬৬ শতাংশের বেশি।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
প্রথম দিনেই ই-ক্যাব নির্বাচনের মনোনয়ন ফরম কিনলেন ১৭ জন
ই-কমার্স খাতকে এগিয়ে নিতে নতুন উদ্যোগ ‘দ্য চেঞ্জ মেকারস ২০২২’
উইন্ডোজ ১১ অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ সমর্থন করবে
বাংলাদেশে গুজব ছড়াতে ও সাইবার হামলায় একটি রাষ্ট্র প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অর্থ বিনিয়োগ করছে- টিএমজিবির ভার্চুয়াল সেমিনারে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক
শুক্র গ্রহে রয়েছে প্রাণ !
আগামী বছর থেকেই ফাইভ-জি স্মার্টফোনের বাজার আবার ঘুরে দাঁড়াবে
অনলাইনে ইনফো-সরকার ৩য় পর্যায় প্রকল্পের স্টীয়ারিং কমিটির সভা
করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বিপিও শিল্প খাত
করোনার ঝুঁকি নিয়ে সকল প্রকার ওয়াটার ফিল্টার পাইকারি ও খুচরা মুল্যে ঢাকা সহ সারা বাংলাদেশে হোম ডেলিভারি করছি- আজিজুল ইসলাম
কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ৪০ লক্ষ টাকা অনুদান দিচ্ছে শাওমি বাংলাদেশ