সর্বশেষ সংবাদ
ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮
ICT News | Online Newspaper of Bangladesh |
রবিবার ● ২০ অক্টোবর ২০১৯
প্রথম পাতা » অ্যাপস কর্নার » জনপ্রিয় অ্যাপগুলোর হালকা সংস্করণ
প্রথম পাতা » অ্যাপস কর্নার » জনপ্রিয় অ্যাপগুলোর হালকা সংস্করণ
৪২৪ বার পঠিত
রবিবার ● ২০ অক্টোবর ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

জনপ্রিয় অ্যাপগুলোর হালকা সংস্করণ

---
দিন যত যাচ্ছে, মোবাইলের অ্যাপের সাইজও তত বাড়ছে। ফ্ল্যাগশিপ ফোনের জন্য এটা কোনো সমস্যাই নয়। তবে যেসব ফোনের র‌্যাম ১ কিংবা ২ গিগাবাইট, সেসবে বড় বড় এত অ্যাপকে জায়গা করে দিতে বেশ বেগ পেতে হয়। তাই ডেভেলপাররা নিজেদের জনপ্রিয় অ্যাপগুলোর হালকা সংস্করণ তৈরি করেছেন। জানাচ্ছেন তামজীদ রহমান লিও

অ্যাপগুলোর হালকা সংস্করণ সাধারণত ‘লাইট ভার্সন’ নামেই বেশি পরিচিত। আমাদের দেশে এই লাইট অ্যাপগুলো বেশ জনপ্রিয়। কারণ এগুলো খুব অল্প পরিমাণ মোবাইল ডাটা ব্যবহার করে। অপেক্ষাকৃত দুর্বল স্পেসিফিকেশনের ফোনগুলোর জন্য গুগল নিজেদের অ্যানড্রয়েডের লাইট সংস্করণ ‘অ্যানড্রয়েড গো’ নিয়ে আসে। আর এটার জন্য তাদের প্রায় সব অ্যাপেরই একটি করে লাইট ভার্সন তৈরি করা হয়েছে। তা ছাড়া ফেসবুকও তাদের মেসেঞ্জার, ফেসবুক অ্যাপের লাইট সংস্করণ বেশ আগেই এনেছে। এসব লাইট অ্যাপের ফিচার মূল অ্যাপের তুলনায় কম। কিন্তু যাঁদের চলতে-ফিরতে এত ফিচারের প্রয়োজন হয় না কিংবা ব্যাটারি ও স্টোরেজ-স্বল্পতায় ভোগেন, তাঁদের জন্য লাইট অ্যাপগুলো খুবই কাজের।

অপেক্ষাকৃত দুর্বল স্পেসিফিকেশনের ফোনগুলোর জন্য এই লাইট সংস্করণ যেন আশীর্বাদ। এই অ্যাপগুলো আকারে মূল অ্যাপ থেকে বেশ ছোট হওয়ায় ফোনে জায়গাও লাগে কম। পাশাপাশি র‌্যামের ওপরও খুব কম চাপ ফেলে এই অ্যাপগুলো। লাইট সংস্করণ অ্যাপ ব্যবহার করলে ব্যাটারি খানিকটা বাড়তি সময় ব্যাকআপ দেয়, কারণ এই অ্যাপগুলোতে প্রচুর ফিচারের পরিবর্তে শুধু মূল ফিচারগুলো থাকে বলে এগুলো চালালে মূল অ্যাপের মতো বেশি ব্যাটারি খরচ হয় না। একই সঙ্গে ডাটা খরচের পরিমাণও এই অ্যাপগুলোতে অনেক কম। শুধু তাই নয়, দুর্বল ইন্টারনেট সংযোগেও এই অ্যাপগুলো দিব্যি কাজ করতে পারে। এমনই কিছু কাজের লাইট অ্যাপের খোঁজ দেওয়া হলো এখানে।

ফেসবুক লাইট

বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি সর্বত্র তুমুল জনপ্রিয়। ফেসবুকের বেশির ভাগ ব্যবহারকারীই মোবাইলের মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহার করেন। ফেসবুক প্রথম দিকেই নিজেদের অ্যাপের লাইট সংস্করণ তৈরি করে। কেননা ফেসবুকের মূল অ্যাপটি যথেষ্ট ভারী এবং প্রচুর চার্জ খরচ করে। ফেসবুক লাইটের আরেকটি সুবিধা হলো, এটি খুব অল্প পরিমাণ ডাটা খরচ করেই চালানো যায়।

মেসেঞ্জার লাইট

শুরুর দিকে অবশ্য মেসেঞ্জারের লাইট সংস্করণে কল করাসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফিচার না থাকলেও এখন প্রায় সব ফিচারই আছে। মূল মেসেঞ্জারের মতো এত বেশি ব্যাটারিও খরচ করে না এটি।

টুইটার লাইট

ফেসবুকের পর মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটারও নিজেদের লাইট অ্যাপ নিয়ে এসেছে। অন্যগুলোর মতো এটিও খুবই ছোট সাইজের এবং ব্যাটারিবান্ধব।

উবার লাইট

উবার ছাড়া আজকাল চলা মুশকিল। শহরে জ্যাম এড়িয়ে চলতে গেলে এর বিকল্প হয় না। কিন্তু উবারের মূল অ্যাপটি অনেকের ফোনের স্বল্প স্টোরেজের কারণে ভালোভাবে না-ও চলতে পারে। আর এই সমস্যা দূর করতে উবার এনেছে তাদের উবার লাইট অ্যাপ। মাত্র ৫ মেগাবাইট আকৃতির এই অ্যাপটি হালকা যেকোনো ফোনে খুব চমৎকারভাবে চলে।

ইউসি ব্রাউজার মিনি
সব ধরনের ফোন ব্যবহারকারীর কাছেই ইউসি ব্রাউজার খুব জনপ্রিয়। বিশেষ করে ধীরগতির ইন্টারনেটে এটি খুব দ্রুত ওয়েবপেজ প্রদর্শন করতে পারে। তা ছাড়া ইউসির বিশেষ ডাউনলোড ম্যানেজার খুব দ্রুত বড় বড় ফাইলও ডাউনলোড করতে পারে। তারাও নিজেদের অ্যাপের একটি লাইট বা মিনি সংস্করণ এনেছে। ইউসি ব্রাউজারের এই হালকা সংস্করণে মূল সংস্করণের মতো প্রায় সব ফিচারই পাওয়া যাবে।
গুগল গো
সার্চ থেকে শুরু করে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের পারসোনালাইজড আপডেটের জন্য গুগল অ্যাপের জুড়ি নেই। সব স্মার্টফোনেই এটি থাকে। ফোনের স্টোরেজ ও ব্যাটারি নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলে মূল অ্যাপের বদলে এই লাইট সংস্করণটি নামিয়ে নিতে পারেন।
ক্লিন মাস্টার লাইট
স্মার্টফোনকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে এবং ফোনটির স্বাস্থ্য ভালো রাখতে ক্লিন মাস্টারের জুড়ি মেলা ভার। সেই শুরু থেকেই জনপ্রিয়তার সঙ্গে এই অ্যাপটি সব ধরনের ব্যবহারকারীর মনে জায়গা করে নিয়েছে। ফোনের জাংক ফাইল ক্লিন করা, ফোন বুস্ট করা, ব্যাটারি সেভার থেকে শুরু করে অ্যান্টিভাইরাসের কাজও করে এই ক্লিন মাস্টার লাইট। ফোনের প্রসেসরে চাপ না ফেলেই সব কাজ করা যায় এই লাইট সংস্করণের মাধ্যমে।
ফাইলস গো
গুগলের স্টক অ্যানড্রয়েডে ফাইল ম্যানেজার থাকে না। তবে অ্যানড্রয়েড গোয়ের জন্য ‘ফাইলস গো’ নামের এই লাইট অ্যাপটি নিয়ে এসেছে গুগল। ছোট্ট এই অ্যাপটি একই সঙ্গে ফাইল ম্যানেজার, ক্লিনার এবং শেয়ার ইটের বিকল্প, মানে ফাইল আদান-প্রদান করার কাজেও লাগবে। যেকোনো ফোনেই নামিয়ে নিতে পারেন অ্যাপটি।
গুগল ম্যাপস গো
দৈনন্দিন চলার পথে গুগল ম্যাপ যেন নিত্যদিনের সঙ্গী। এটি বর্তমানে একটি উন্নতির দিকে এগিয়ে যাওয়া ওয়েব অ্যাপ, তাই এটি ব্যবহার করতে ফোনে গুগল ক্রোম ইনস্টল থাকা আবশ্যক। মূল অ্যাপটির মতো এখানেও নেভিগেশন থেকে শুরু করে প্রায় সব ধরনের ফিচারই আছে। স্বল্প ইন্টারনেট এবং অল্প জায়গা ব্যবহার করেই দরকারি সব কিছু করা যায় গুগল ম্যাপস গো দিয়ে।
জিমেইল গো
জিমেইল অ্যাপকে চমৎকারভাবে কাস্টোমাইজ করে হালকা এই সংস্করণটি অ্যাপস্টোরে ছাড়া হয়েছে। ১৫ গিগাবাইটের বিনা মূল্যের স্টোরেজ থেকে শুরু করে একাধিক অ্যাকাউন্ট সমর্থনসহ সব ধরনের সুবিধা এই লাইট সংস্করণটিতে আছে। সুন্দর ইউজার ইন্টারফেসের এই অ্যাপ বেশ ছোট সাইজের, নিরাপদ এবং কার্যক্রমে দুর্দান্ত। যাঁরা ফোনের স্টোরেজ নিয়ে শঙ্কিত থাকেন, তাঁরা নির্দ্বিধায় এটি ব্যবহার করতে পারেন।
ইউটিউব গো
গুগলের ইউটিউব এখন মোবাইল বিনোদনের সবচেয়ে বড় মাধ্যম। তাদের মূল ইউটিউব অ্যাপটি অনেক ডাটা খরচ করে। আর এ সমস্যা সমাধানে ইউটিউবের এই সংস্করণটি এনেছে। এ ছাড়া এটি ভিডিও ডাউনলোড করে অন্য ইউটিউব গো ব্যবহারকারীর সঙ্গে ডাটা খরচ ছাড়াই পাঠাতে পারে।
স্কাইপ লাইট
ম্যাসেজিং এবং ভিডিও কলিংয়ের বহুল জনপ্রিয় অ্যাপ স্কাইপ। এর লাইট সংস্করণ স্কাইপ লাইট আকৃতিতে ছোট, বেশ দ্রুতগতির এবং দুর্বল ইন্টারনেটেও চলতে সক্ষম। মূল সংস্করণের মতো এতেও প্রায় সব ফিচারই বিদ্যমান।
ফায়ারফক্স লাইট
অন্যতম সেরা ব্রাউজারগুলোর মধ্যে ফায়ারফক্সের নাম একেবারে ওপরের দিকে। দ্রুতগতিতে এবং অল্প ডাটা ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্রাউজ করার জন্য ফায়ারফক্স এনেছে তাদের লাইট সংস্করণ ফায়ারফক্স লাইট। ৪ মেগাবাইট সাইজের এই ছোট্ট ব্রাউজারটিতে টার্বো মোড, অ্যাড ব্লকিং সিস্টেম থেকে শুরু করে দরকারি অনেক কিছুই আছে।
লিংকডইন লাইট
পেশাদারদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম লিংকডইন ব্যবহার করেন না এমন ব্যক্তি খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। এই লিংকডইনও তাদের অ্যাপের একটি লাইট সংস্করণ বের করেছে। মাত্র ১ মেগাবাইট সাইজের এই অ্যাপটিতে মূল অ্যাপের প্রায় সব ফিচারই আছে।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
উইন্ডোজ ১১ অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ সমর্থন করবে
বাংলাদেশে গুজব ছড়াতে ও সাইবার হামলায় একটি রাষ্ট্র প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অর্থ বিনিয়োগ করছে- টিএমজিবির ভার্চুয়াল সেমিনারে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক
শুক্র গ্রহে রয়েছে প্রাণ !
আগামী বছর থেকেই ফাইভ-জি স্মার্টফোনের বাজার আবার ঘুরে দাঁড়াবে
অনলাইনে ইনফো-সরকার ৩য় পর্যায় প্রকল্পের স্টীয়ারিং কমিটির সভা
করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বিপিও শিল্প খাত
করোনার ঝুঁকি নিয়ে সকল প্রকার ওয়াটার ফিল্টার পাইকারি ও খুচরা মুল্যে ঢাকা সহ সারা বাংলাদেশে হোম ডেলিভারি করছি- আজিজুল ইসলাম
কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ৪০ লক্ষ টাকা অনুদান দিচ্ছে শাওমি বাংলাদেশ
বাংলাদেশে দ্রুত বিকাশ লাভ করছে ডিজিটাল অর্থনীতি, সব ধরনের সহযোগিতা করবে যুক্তরাজ্য।
ক্লাউড সেবা অ্যাজারের ৪ কোটি ৪০ লাখ ব্যবহারকারী চুরি যাওয়া পাসওয়ার্ড ব্যবহার করছে