সর্বশেষ সংবাদ
ঢাকা, মে ১৭, ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
ICT News | Online Newspaper of Bangladesh |
মঙ্গলবার ● ২৬ নভেম্বর ২০১৯
প্রথম পাতা » আইসিটি শিল্প ও বানিজ্য » হুয়াওয়েকে হটিয়ে শীর্ষে নকিয়া
প্রথম পাতা » আইসিটি শিল্প ও বানিজ্য » হুয়াওয়েকে হটিয়ে শীর্ষে নকিয়া
৩৯৬ বার পঠিত
মঙ্গলবার ● ২৬ নভেম্বর ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

হুয়াওয়েকে হটিয়ে শীর্ষে নকিয়া

 ---

চীন-মার্কিন বাণিজ্য বিরোধের বলি টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের জন্য আরেকটি দুঃসংবাদ। গত বছর টেলিকম সফটওয়্যার ও সেবা (টিএসএস) বাণিজ্যে হুয়াওয়েকে ছাড়িয়ে গেছে নকিয়া। ফিনল্যান্ডের কোম্পানিটিই এখন এ খাতে নেতৃত্ব দিচ্ছে। যেখানে ২০১৮ সালে এ খাতের বাজার ১ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৬১০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।

লন্ডনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান অ্যানালাইসিস ম্যাসন সম্প্রতি টিএসএস মার্কেট নিয়ে এ পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেছে। তাদের গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালে যেসব কোম্পানির বেশ ভালো বাজার অংশীদারিত্ব ছিল, ২০১৮-তে এসে তারা আর ভালো করতে পারেনি। তবে চমক দেখিয়েছে নকিয়া।

স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রাহকের চাহিদা পূরণের ব্যবস্থা (নেটওয়ার্ক অরকেস্ট্রেশন) ও অটোমেশন এখন এ খাতের সবচেয়ে উদীয়মান ব্যবসা। আর এ ব্যবসাতেই ভালো করেছে নকিয়া। এমনকি টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়েকে ছাড়িয়ে শীর্ষে উঠে গেছে।
অ্যানালাইসিস ম্যাসনের গবেষণা পরিচালক ডানা কুপারসন বলেন, টিএসএস ব্যবসায় নকিয়া সত্যিই বেশ ভালো করছে। গত বছর এক লাফে শীর্ষে উঠে এসেছে।

গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী, টেলিকম সফটওয়্যার ও সংশ্লিষ্ট সেবা খাতে ২০১৮ সালটি ছিল নকিয়ার জন্য পয়া। সে বছর এ বাজারের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১ শতাংশ। আর নকিয়ার রাজস্ব প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩ শতাংশ। এর বিপরীতে ২০১৭ সালে শীর্ষে থাকা হুয়াওয়ে ও এরিকসনের রাজস্ব কমেছে যথাক্রমে ৫ ও ২ শতাংশ।
হালনাগাদ হিসাব অনুযায়ী, টিএসএস বাণিজ্যে এখন নকিয়ার অংশীদারিত্ব ৭ দশমিক ২ শতাংশ আর হুয়াওয়ের ৭ দশমিক ১ শতাংশ। এরিকসনের বাজার অংশীদারিত্ব ৭ শতাংশ। অর্থাৎ এ তিন কোম্পানি এখন পরস্পরের কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। চলতি বছর মার্কিন প্রযুুক্তি কোম্পানি আইবিএমকে ছাড়িয়ে গেছে অ্যাকসেনচার। টিএসএস বাজারে কোম্পানিটির অংশীদারিত্ব এখন ৩ দশমিক ২ শতাংশ।

গত বছর টেলিকম সফটওয়্যার ও সেবা খাতে উল্লেখ করার মতো একটি প্রবণতা লক্ষ করা গেছে। কমিউনিকেশন সার্ভিস প্রোভাইডাররা (সিএসপি) সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ও ডাটা বিশ্লেষণ (এআইএ) এবং নেটওয়ার্ক অটোমেশন ও অরকেস্ট্রেশনের (এনএও) ওপর। দুটি খাতে গত বছর সামগ্রিক ব্যয় বেড়েছে যথাক্রমে ৩ দশমিক ৭ ও ১৩ দশমিক ১ শতাংশ।

অন্যদিকে গ্রাহক সেবা, সার্ভিস ডিজাইন, ভিডিও ও আইডেনটিটি ম্যানেজমেন্টের মতো খাতে ব্যয় অপরিবর্তিত অথবা কোনো ক্ষেত্রে ১ শতাংশ কমেছে। মূলত অটোমেশনের কারণেই অন্যান্য খাতে ব্যয় কমেছে বলে মনে করা হচ্ছে।
তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণে দেখা গেছে, অটোমেশনে সবচেয়ে বেশি ব্যয় ও কার্যকর ব্যবহারের দক্ষতা দেখিয়েছে নকিয়া। এ কারণেই কোম্পানিটি এক বছরের ব্যবধানে তৃতীয় অবস্থান থেকে শীর্ষে উঠে গেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
অবশ্য হুয়াওয়ের পিছিয়ে পড়ার বড় কারণ হতে পারে ভূরাজনৈতিক বিরোধ। চীন-মার্কিন বাণিজ্য বিরোধের জেরে নানা দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য বাধার মুখে পড়ায় টেলিকম ও সেলফোন ব্যবসায় বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে এ চীনা টেলিকম জায়ান্ট।

তার পরও গত বছর টিএসএস বাণিজ্যে সার্বিকভাবে ভালোই করেছে হুয়াওয়ে। হুয়াওয়ের পরিবহন ব্যবসায় রাজস্ব কমেছে। এ ইউনিটটি হুয়াওয়ের মোট রাজস্বের ৪১ শতাংশ জোগান দেয়। সেদিক থেকে টিএসএ ব্যবসার রাজস্ব কমলেও সার্বিকভাবে খুব খারাপ বলা যাবে না। তাছাড়া রাজস্ব কমে যাওয়ার আরেকটি বড় কারণ হলো, ২০১৭ সালে বিজনেস সাপোর্ট সিস্টেম (বিএসএস) ব্যবসা সম্পূর্ণ গুটিয়ে নেয়া। এতে টিএসএস খাতের রাজস্বে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। তাছাড়া নকিয়া ও এরিকসন যেভাবে এনএফভি ও এসডিএন ব্যবসায় ভালো করেছে, হুয়াওয়ে সেক্ষেত্রে আশানুরূপ সফলতা দেখাতে পারেনি।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
বাংলাদেশে গুজব ছড়াতে ও সাইবার হামলায় একটি রাষ্ট্র প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অর্থ বিনিয়োগ করছে- টিএমজিবির ভার্চুয়াল সেমিনারে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক
শুক্র গ্রহে রয়েছে প্রাণ !
আগামী বছর থেকেই ফাইভ-জি স্মার্টফোনের বাজার আবার ঘুরে দাঁড়াবে
অনলাইনে ইনফো-সরকার ৩য় পর্যায় প্রকল্পের স্টীয়ারিং কমিটির সভা
করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বিপিও শিল্প খাত
করোনার ঝুঁকি নিয়ে সকল প্রকার ওয়াটার ফিল্টার পাইকারি ও খুচরা মুল্যে ঢাকা সহ সারা বাংলাদেশে হোম ডেলিভারি করছি- আজিজুল ইসলাম
কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ৪০ লক্ষ টাকা অনুদান দিচ্ছে শাওমি বাংলাদেশ
বাংলাদেশে দ্রুত বিকাশ লাভ করছে ডিজিটাল অর্থনীতি, সব ধরনের সহযোগিতা করবে যুক্তরাজ্য।
ক্লাউড সেবা অ্যাজারের ৪ কোটি ৪০ লাখ ব্যবহারকারী চুরি যাওয়া পাসওয়ার্ড ব্যবহার করছে
প্রজাতির নতুন সন্ধান ৭১